মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

চলবলা ইউনিয়নের ইতিহাস

চলবলা ইউনিয়নের ইতিহাস

 

১১ টি গ্রাম নিয়ে চলবলা ইউনিয়ন গঠিতহয়। ঐসময়েই উনিয়ন এর চেয়ারম্যানকে গ্রামপ্রেসিডেন্ট বলা হত। ১৯৫০সালে পাকিস্তান শাসনামলে গ্রামপ্রেসিডেন্ট এর পদকে ইউনিয়নচেয়ারম্যান পদবীঘোষণা করা হয়। প্রথম চেয়ারম্যান নির্বাচিতহন সোনাউল্লা সরকার। তারপর পর্যায় ক্রমে আজগার আলী বসুনীয়া, অনিল চন্দ্র সরকার, অতুল চন্দ্র সরকার  চেয়ারম্যানের দায়িত্বপালন করেন। ১৯৬০সালে সোনাউল্লা সরকার প্রথম ইউনিয়ন পরিষদচেয়াম্যান মনোনীতহন এবং তিনিই মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে অত্রইউনিয়নের চেয়ারম্যানছিলেন। ১৯৭১ এবাংলাদেশ স্বাধীন হবার পর আজগার আলী,  ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের দায়িত্বপালন করেন। প্রথমে অত্র ইউনিয়ন পরিষদ সুকানদীঘি বাজারে অবস্থিত ছিল । পরবর্তীতে দেশ স্বাধীন হবার পর ইউনিয়ন পরিষদ পাকা বিল্ডিং তৈরীর জন্য সোনাউল্লাহ সরকার সোনারহাটে নিয়ে আসেন ।সোনাউল্লাহ সরকারে অত্র ইউপির ও বাজারের জমি দান করেন এবং তার নাম অনুসারে অত্র এলাকার নাম হয় সোনারহাট বাজার । এবং চলবলা নাম হয় অত্র এলাকার মানুষ জন নাকি খুবই চঞ্চল স্বভাবের ছিলেন এবং বিভিন্ন কার্যবিধি চলমান রাখার জন্য অত্র এলাকার নাম হয় চলবলা ।তৎকালিন সময়ে গরুর মহিষের গাড়ী ছিল একমাত্র যানবাহ ব্যবস্থা ।বর্তমান চলবলা ইউনিয়ন ১০ টি মৌজা নিয়ে গঠিত ।এবং ০৫-১২-২০০২ ইং সালে দ্বিতল কম্পেক্স ভবন এর শুভ উদ্ভোধন হয় ।

 

 

 


Share with :

Facebook Twitter